মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

উপজেলার ঐতিহ্য

           সিংগাইর উপজেলার ফোর্ড নগর এবং তোপখোলা অঞ্চল বিস্মৃতীর গহ্বরে হারিয়ে এই ঐতিহাসিক স্থান। বাস্তাবে এই নগরীদ্বয়ের নিদর্শন আজ আর খুঁজে পাওয়া যায় না। করণ এর প্রাসাদ, অট্টালিকা, রাস্তাঘাট এবং অন্যান্য স্থাপত্যশিল্প প্রমত্তা ধলেশ্বরীর গহ্বরে ধ্বংস হয়ে গেছে। গোড়াপত্তনের অল্পকাল পরেই ধ্বংসপ্রাপ্তির ফলে সম্ভবত এ নগরীদ্বয় সমসাময়িক ইতিহাস বেত্তাদের নজরে আসেনাই।

 

          ধ্বংসপ্রাপ্ত নগরীদ্বয় সিংগাইর উপজেলার উত্তার-পূর্ব প্রান্তে অবস্থিত। মানচিত্রে ফোর্ড নগরীর নাম উল্লেখ থাকলেও তা ফুডনগর বা ফুটনগর নামে বর্তমানে এলাকাবাসীর কাছে পরিচিত। আজকের চরাঞ্চলের ফুড নগরীকে ব্যবসা করছে তারা হয়তো ভাবতেই পরবে না, এ এলাকার ইতিহাস ও ঐতিহ্য ছিল। ছিল জনবহুল নগরীর গৌরবময় ইতিহাস।

 

         পূর্বে গুরুত্বপূর্ণ এবং বড় বড় নগরী এবং দূর্গ নগরীতে অবস্থানরত সেনাবাহিনীর প্রয়োজনীয় সামরীক উপকরণ, রসদ ও যুদ্ধাস্ত্র সরবরাহের জন্য কাছাকাছিতেই গোলাঘর বা তোপখোলায় নির্মান করা হতো।

 

         ফুর্ডনগরীর অবস্থান প্রতিরক্ষা ব্যুহ হিসেবে ছিল খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং এ ধারনা অনেকাংশে সত্য এ নগরীর গোড়াপত্তনের পেছনে সামরিক প্রতিরক্ষা জনিত পরিকল্পনা বিদ্যমান ছিল।

 

          ধলেশ্বরী এবং বংশী নদীর প্রাচীন ও বর্তমান প্রবাহ এবং এ নদীদ্বয়ের সঙ্গে দেশের অপরাপর সঙ্গে সংযোগের দিকে লক্ষ্য করলেই এর গুরুত্ব নিরূপন সহজতর হবে।

 

         সিংগাইর উপজেলা এইসব ইতিহাস আজ শুধুই ইতিহাস।