মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

ভাষা শহীদ রফিক গ্রন্থগার ও জাদুঘর

প্রথম শহীদ 
রফিক উদ্দিন আহমদ
জন্মঃ ৩০ অক্টোবর ১৯২৬
মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার পারিল গ্রাম
মৃত্যুঃ ২১ ফেব্রুয়ারী ১৯৫২
পিতাঃ আব্দুল লতিফ
মাতাঃ রাফিজা খাতুনশিক্ষা জ্ঞান আর বিপ্লবের অগ্নিমন্ত্রে উদ্দীপ্ত পারিলে ১৯২৬ সালের ৩০ অক্টোবর জন্মগ্রহন করেন ভাষা আন্দোলনের প্রথম শহীদ রফিক উদ্দিন আহমদ। রফিকের দাদার নাম মোঃ মকিম মোঃ মকিমের ঘরে জন্ম নেন জরিপ উদ্দিন,তরিপ উদ্দিন,ওয়াসিম উদ্দিন,আব্দুল লতিফ এই আব্দুল লতিফই রফিকের  গর্বিত পিতা। মা রাফিজা খাতুন এদের ঘর আলো করে জন্ম নেন রফিক উদ্দিন আহমদ ,আব্দুর রশিদ ,আব্দুল খালেক ,আব্দুস সালাম , খোরশেদ আলম ,আলেয়া বেগম , জাহানারা বেগম।  বাল্যকাল থেকেই রফিক ছিলেন চঞ্চল প্রাণোচ্ছল প্রাণোচ্ছলতার শিল্পীত প্রকাশও ঘটেছিল কৈশর বয়সেই। সুঁই-সুতায় নকশা আঁকায় হাত পেকে ছিল বেশ। রফিকের দূরন্তপনার মূখ্য বিষয় ছিল গাছে চড়া আর গাছে চড়তে গিয়েই একবার তার পা ভাঙে। চিকিৎসার জন্য সে সময় তাকে কলকাতা পর্যন্তও পাঠানো হয়েছিল চঞ্চল রফিকের ভবিষ্যত ভেবে তার বাবা তাঁকে কলিকাতার মিত্র ইন্সটিটিউটে ভর্তি করিয়ে দেন। কিন্তু সেখানে তাঁর মন টেকেনি। কবছর পর ফিরে আসেন দেশে। ভর্তি করিয়ে দেয়া হয় সিংগাইরের বায়রা হাই স্কুলে। স্কুল থেকেই ম্যাট্রিক পাশ করেন তিনি এরপর কলেজ জীবন ভর্তি হন দেবেন্দ্র কলেজের বাণিজ্য বিভাগে এবং ১ম ২য় বর্ষ পর্যন্ত লেখাপড়া করেন। তারপর লেখাপড়া বন্ধ। তবে লেখাপড়া ছেড়ে থাকা তাঁর সম্ভব হয়নি আবারও ভর্তি হন ঢাকার জগন্নাথ কলেজে জগন্নাথ কলেজেল ছাত্র থাকাকালেই শাহাদাৎ বরণ করেন তিনি

 

তাই সিংগাইর বাসী যাতে ভাষা শহীদ রফিক উদ্দিন আহাম্মদ এর জীবনাদর্শ সম্পর্কে জানতে পারে সেই লক্ষে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পক্ষথেকে সিংগাইর উপজেলার বলধারা ইউনিয়নে পারিল গ্রামে তৈরী করা হয়েছে ভাষা শহীদ রফিক স্মৃতি পাঠাগার।